শিরোনামঃ
Loading...

মুক্ত আইটিতে আপনাকে স্বাগতম । মুক্ত আইটি থেকে আপনারা কি ধরণের টিউটোরিয়াল প্রত্যাশা করেন অথবা কোনো বিষয়ে অভিযোগ, পরামর্শ,মতামত করার থাকলে মুক্ত আইটি এর ফ্যান পেজে মেসেজ দিন

Showing posts with label আউটসোর্সিং. Show all posts
Showing posts with label আউটসোর্সিং. Show all posts

বাংলা ব্লগ থেকে ও আয় করুন । গুগল এডসেন্সের সেরা বিকল্প ।

বাংলা ব্লগ থেকে ও আয় করুন । গুগল এডসেন্সের সেরা বিকল্প ।
Hello ,সবাই কেমন আছেন? আমি ভালো আছি । আশা করি আপনারা ও ভালো আছেন । আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো কিভাবে বাংলা  ব্লগ থেকে আয় করা যায় অনলাইনে  অনেক ভাবে আয় করা যায় এর মধ্যে এড বসিয়ে আয় করা এর মধ্যে অন্যতম   হচ্ছে এই আমরা যতই বলি এডসেন্সের বিকল্প কিন্তু বাস্তবে এডসেন্সের বিকল্প বলতে কিছুই নেই এডসেন্স যতটা পে করে কোনো এডনেটওয়ার্কই এতটা পে কখনোই করে না । তবে আমরা কয়জনে এডসেন্স পাই । আর পেলেও বেশিদিন লাগেনা ব্যান খেতে । যাইহোক আমি আপনাদের সাথে একটা ভালো এডনেটওয়ার্ক নিয়ে আলোচনা করবো রেট খারাফ না ভালোই  আমি  cpm rate গড়ে ২$ করে পাচ্ছি ।

আমরা এতক্ষন ধরে যে এডনেটওয়ার্কের কথা বলছি সেটা হচ্ছে POPCASH এটি একটি popunder Advertising Network . পপ আন্ডারের সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এটি আপনার ওয়েব সাইটের কোনো জায়গা নিবে না । ইউজাররা আপনার ওয়েব সাইটের কোনো পেজ/পোস্ট বা খালি জায়গায় ও ক্লিক করলে এড এ ক্লিক হয়ে যাবে । যেহেতু আমি পেমেন্ট পাওয়ার পরেই পোস্টটি লিখতেছি তাহলে আপনাকে পেমেন্ট নিয়ে চিন্তা করতে হবে না । টাকা দেয় ১০০ ভাগ শিউর ।

How to Earn money From Bangla blog in Bangladesh


how to earn from bangla blog


Top and Best Google Adsense Alternatives

একনজরে দেখে নেওয়া যাকঃ

Type Service
Commission type CPM,Popunder
Minimum Payout 10$
Payment Frequency Daily
Payment Method paypal,paxum,Payza
Country Romania
Minimum Traffic Required 10 Minutes Approval
Adserving International

*** টিউনটি পড়ে যদি মনে হয় আপনি উপকৃত হয়েছেন তাহলে আপনি এটি  ফেসবুক, গুগল প্লাস, টুইটারে   শেয়ার করতে ভুলবেন না  ***

নিচের টিউটোরিয়াল গুলো লক্ষ্য করুন কাজে লাগতে পারেঃ
আজ এই পর্যন্তই সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন । সবার জন্য শুভ কামনা রইলো । আমাদের পোস্ট গুলো দ্বারা যদি নূন্যতম ও উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে ফেসবুক,টুইটার,গুগল প্লাস এ আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না । কারো কোনো সমস্যা হলে কমেন্ট এ জানান। আমি সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো । অনলাইনে আয় বিষয়ক সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের পেজে লাইকদিনঅথবা ফেসবুকে আমাকে জানাতে পারেন

Payonner MaterCard হাতে যেভাবে পাবেন আর পেয়ে যেভাবে Activation করবেন সাথে রয়েছে Apply করার সঠিক নিয়ম

Payonner MaterCard হাতে যেভাবে পাবেন  আর পেয়ে যেভাবে Activation করবেন সাথে রয়েছে Apply করার সঠিক নিয়ম
সবাই কেমন আছেন। আশা করি ভালো আছেন। আজকের টিউটোরিয়ালটা  নিয়ে হয়তো অনেক টিউন হয়েছে এবং নিজেও অনেক টিউটোরিয়াল পড়েছেন। তারপরও অনেকে আছেন এখন payoneer Mastercard এখনও হাতে পাননি। এর প্রধান কারন হতে পারে আপনি সঠিক গাইড লাইন পাননি। আমি নিজেও কিন্তু প্রথম apply তে পাইনি। পরের বার apply করি এবং পেয়ে যায়। সবার যে ভুলটা সবচেয়ে বেশি হয় সেটা হল তারা সঠিক ভাবে ঠিকানা দিতে পারে না।

Payonner MasterCard এর সুবিধা কি কি।কেন এটা apply করব?

  • প্রথমতো এটা একটা ইন্টারন্যাশনাল mastercard যেটা বাংলাদেশ সহ যেকোনো দেশে সাপোর্ট করে তাই আপনি এটা যেকোন জায়গায় ব্যবহার করতে পারবেন।
  • এখন প্রায় সকল সাইট থেকে Payonner mastercard ব্যবহার করে টাকা তুলতে পারবেন।
  • বিভিন্ন দেশি বিদেশি সাইট থেকে আপনার বিভিন্ন পন্য ক্রয় করতে পারবেন।
  • বাংলাদেশ ATM থেকে dutch bangla bank কিংবা বিভিন্ন বাংক যা MasterCard লোগো আছে যে যে ATM বুথে সেখান থকে যেকোন সময় টাকা তুলতে পারবেন।

Refer লিংক নিয়ে কিছু কথাঃ

অনেকের ধারনা থেকে যে refer লিংক দিয়ে সাইন আপ করলেই বুঝি আমরা 25$ পেয়ে যাব।আসলে ব্যাপারটা যতটা সহজে নেন আসলে তত সহজ না এজন্য আপনাকে 100$ লোড দিতে হবে mastercard তাহলেই কেবল আপনি refer link এর টাকা পাবেন। তারপরও Refer লিংক দিয়ে সাইন আপ করাই ভালো  কেনোনা ২৫$ পাবার একটা সম্ভাবনা থাকে।এজন্য আপনি যেকোনো valid Refer Link ব্যবহার করতে পারেন। যেমন আমার একটা valid Refer Link আছে নিচের ভিডিওতে এটা ব্যবহার করতে পারেন। যদি এতে আপনি ১০০$ লোড না করলে এই রিফারলিংক কোন কাজেই আসবে না। তারপর দিলাম যদি চান আপনার পরিচিত কারো ব্যবহার করতে পারেন।একজনের টা দিয়ে করলেই হয়।

ঠিকানা নিয়ে কিছু কথাঃ

সত্যি কথা বলতে কি ৯০% কার্ড পাওয়া যায়না সঠিক ঠিকানা না ব্যবহার করার জন্য।এই সমস্যা আমার ও হয়ে ছিল।তাই এই জিনিস টা সবচেয়ে বেশি নজর দিবেন।Matercard পাওয়া নির্ভর করে আপনার ঠিকানা কিভাবে দিলেন সেটার উপর।আমি টিউন এর নিচে একটা ভিডিও শেয়ার করব সেখান থিকে আপনি দেখে নিতে পারেন যে কিভাবে আপনি ঠিকানা দিলে আপনি সহজে পেয়ে যাবেন আপনার Payoneer MaterCard।

যেভাবে  payoneer MaterCard Active করতে হয়ঃ

আপনি mastercard হাতে পাওয়ার পর mastercard ১৬ Digit এর একটা কোড থাকবে সেটা দিয়ে আপনাকে আক্টিভ করতে হবে।সেসময় অবশ্যই আপনাকে 4 digit এর একটা পাসওয়ার্ড দিতে হবে যেটা আপনার মাস্টারকার্ড এর পাসওয়ার্ড হিসেবে থাকবে।যেমনটা থাকে বিকাশ আকাউন্ট করতে গেলে।

যেভাবে সঠিক নিয়ে Apply করবেন এবং তা Active করবেনঃ

Payoneer Mastercard Apply করার সময় অনেকগুলো নিয়ম মানতে হয়।ঠিকানা একটা বড় ফাক্ট হয়ে দাঁড়ায়।কি কি করতে হবে তা অনেক কিছুই জানার আছে।এই সব চিন্তা করে আমি একটা ভিডিও বানাইছি যেটা কিনা mastercard Apply করা থিকে Activation করা পর্যন্ত সম্পূর্ণ টিউটোরিয়াল দেওয়া আছে  ।আপনার যদি কোন সমস্যা না থাকে তাহলে এই ভিডিও তা দেখতে পারেন।এই ভিডিও আপনি মাষ্টারকার্ড এর খুটিনাটি পেয়ে যাবেন। কারন আমি যেভাবে পেয়েছি সেটায় এখানে শেয়ার করা হয়েছে।

https://www.youtube.com/watch?v=7jhrQzycLrk


সবশেষে যা বলব:

যদি মনে করেন আপনার সমস্যা হচ্ছে তাহলে বলব উপর থেকে ভিডিও টা আবার দেখেন।তাহলে আর সমস্যা থাকবে না। এই বিষয়ে কোন কিছুর জানার থাকলে  আমার  Youtube channel যোগাযোগ করতে পারেন কোন সমস্যা হলে। সবাই ভালো থাকবেন ব্যাই।



সত্যিকারের অনলাইনে আয় ( Online Income ) Vs বাস্তবতা (Reality)

সত্যিকারের অনলাইনে আয় ( Online Income ) Vs বাস্তবতা  (Reality)

 অনলাইনে আয় ( Online Income ) Vs বাস্তবতা  (Reality)

Hello ,সবাই কেমন আছেন? আমি ভালো আছি । আশা করি আপনারা ও ভালো আছেন । আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো সত্যিকারের অনলাইনে আয় ( Online Income ) Vs বাস্তবতা নিয়ে । আপনাদের জন্য আজকের পোস্টটা লিখার কথা ছিলো অনেক আগেই বাট সময়ই হয়ে উঠে নাহ লিখার । যাইহোক , ফেসবুকে ঢুকলেই দেখি CPA করে ৫০ হাজার আয় , এস ই ও করে ১ লক্ষ্য টাকা আয় করুন , এফিলিয়েট করে ৩ লক্ষ্য টাকা আয় করুন অথবা কথাও দেখা যায় ভিবিন্ন গ্রুফে যে এই লিংকে ক্লিক করে সাইন আপ করলেই আপনি ৫০ ডলার   অনলাইনে আয় ( Online Income ) করতে পারবেন । বাংলাদেশের ভিবিন্ন ব্লগ এ এখন ঢুকলেই দেখা যায় সব টাকা আর টাকা ইস আমি যদি কিছু ধরতে পারতাম 😛😛😛

সত্যিকারের অনলাইনে আয় ( Online Income ) Vs বাস্তবতা  (Reality) 

অনলাইনে আয় ( Online Income bangla Tutorial )


ট্রেনিং সেন্টারঃ

আমি জানি ট্রেনিং সেন্টারের কোনো প্রশিক্ষক যদি এই পোস্টটি দেখে তিনি রাগ করবেন 😝 । ভাই রাগ করলে আমার কি আর করার আমার যে নৈতিক দায়িত্ব সবাইকে আসল কাহিনী খুলে বলার , আসলে অনলাইনে আয় ( Online Income ) মানুষ যতটা সহজ ভাবে অতটা সহজ না বাস্তব জীবনের মতই কষ্টকর এবং কঠোর পরিশ্রম করতে হয় । আপনি একটা চাকরি পাওয়ার জন্য ২০-২১ বছর শিক্ষ্যা প্রতিষ্ঠানে কাটান , তাও চাকরি পাওয়ার গ্যারান্টি নেই কারণ বাংলাদেশে যে হারে প্রতি বছর গ্র্যাজুয়েট বের হচ্ছে সে হারে কিন্তু চাকরি পাচ্ছে নাহ , সরকার দিবে বা কোথায় থেকে 😕

ট্রেনিং সেন্টারে গিয়ে শিখে ১৫ হাজার টাকা খরছ করে শিখে ফেললেন ইউটিউব মার্কেটিং কিন্তু বাস্তব জীব্নে এসে দেখেন ভিউই পাই নাহ , চ্যানেল উপরে উঠতেছেনা ,ইনকাম হয় নাহ আরো কত কি । তারপরে এসইও ট্রেনিং সেন্টারে গেলেই বুঝতে পারবেন কত নিচ্ছে এখানে পাবলক প্লেসে বলার প্রয়োজন রাখেনা , তারপরে আপনি আর কি করলেন অইখান থেকে এসে মারকেট প্লেসে একাউন্ট করলেন কিন্তু বাস্তবে দেখা গেলো আপনি কাজ ও পারছেন না ঠিকমত বা ক্লায়েন্ট এর সাথে কমুনিকেট করতে ও পারছেন না ভাষাগত সমস্যার কারণে । এভাবে তো আছেই ওয়েব ডিজাইন , এফিলিয়েট মার্কেটিং ইত্যাদি

PTC ( Paid to Click )

এই পধ্যতিতে আয় করা যাবে তবে মাসে ১ ডলার 😛 মানুষকে রেফার করলে হয়ত সেটা ৩০ ডলার বড় জোরে হবে । কিন্তু কোনো কোনো সাইট আছে গাদার মত খাটায় কিন্তু পেমেন্ট চাইলে তাদেরকে খুজে পাওয়া যায় নাহ , হয় আপনাকে ব্যান করবে না হয় পেমেন্ট না করে বলে দিবে পেমেন্ট করছে 😓 ।

ভূয়া সাইট ( Scam Site ) :

মাত্র ১০ মিনিটেই ৫০০ টাকা আয় করুন , ১ ক্লিক দিন হয়ে যাবে ১ ডলার দিনে ১ হাজার ক্লিকের উপরে মাসের ক্লিকের সংখ্যা দাড়াবে লাখের উপরে মানে ক্লিক করেই আপনি ৫ লক্ষ্য -১০ লক্ষ্য ডলার মাসেই আয় করতে পারবেন কয়দিন পর পত্রিকায় দেখাবে আপনি বিলগেটস কে ও ছেড়েছেন । বিকেয়ারফুল  এই সব ভূয়া সাইট থেকে থাকুন ১০০০০০০০ হাত দূরে ।

ভূয়া সাইট  চেনার উপায়ঃ


  • তাদের সাথে  Communication করার অবস্থা থাকবে নাহ ।
  • Contact করলে ও তারা রিপ্লায় কখনো না দিবেনাহ ।
  • সাইটের ডিজাইন প্রফেশনাল হবে নাহ
  • তাদের লাভের কোনো সোর্স না থাকলে যেমনঃ আপনি আমাকে দিয়ে কাজ করিয়ে আমাকে ১০ ডলার দিবেন কিন্তু আপনি ১ ডলার ও পাচ্ছেন নাহ , তাহলে আপনি আমাকে কেনো দিবেন । আপনি যদি ২০ ডলার আয় করতেন আমাকে দিয়ে তাহলে হয়ত আপনি আমাকে ১০ ডলার অবশ্যই দিতেন ।
  • আরেকটা উপায় হলো যে সাইট আপনি সে সাইটের নাম লিখে সাথে ভূয়া কথাটা লিখে গুগলে সার্চ করুন , যে পোস্ট গুলো আসবে সে গুলো পড়ূন । বাংলাতে এতো ভালো পোস্ট না আসলে ও ইংরেজিতে সার্চ করুন যেমনঃ Neobux is it scam or legit?  
  • উপরের কোনো কন্ডিশানের সাথে না মিললে , আপনি কম করে আয় করে তুলে ফেলুন , যদি না দেয় তাহলে ও আপনার এত কষ্ট হলো নাহ ! আর কি দরকার ঝুঁকি নেওয়ার আমি এই পোস্টে রিয়েল সোর্স গুলো দেখিয়ে দিবো ।
  • সাইন আপ করলেই ১০০ ডলার এই ধরনের দেখলেই বুঝবেন কাহিনি সেটা , কোনটা 😇
  • এলেক্সা র‍্যাংক অবশ্যই কম থাকবে ট্রাস্টেড সাইট গুলোর ।
http://www.500tkflexiload.wapka.mobi/index.html ( ১০ মিনিটে ৫০০ টাকা  😲) 

তাহলে কোনদিকে যাবো ?

সবাই যদি মা-বোন হয় বিয়া করমু কারে - বাণিতে হিরো আলম ।


যাই হোক , অনলাইনে আয় করার সঠিক অনেক উপায় আছে । আপনি যদি চাকরি করে থাকেন তাহলে আমি বলবো চাকরি ছাড়বেন না , কারণ আমি অনেক বড় ভাইকে দেখেছি তারা অনলাইনে কয়েকটা টাকা আয় করে সেটা দেখে চাকরি ও ছেড়ে দেয় পরে বলে ভাই আমি তো ভিখারি হয়ে গেছি 

সময়ঃ

এটি খুবই মূল্যবান একটি জিনিষ এটি আর নতুন করে বলতে হবে নাহ ! অনলাইনে আয় করার ক্ষেত্রে এই ঘটনাটি আরো বেশি সত্য । ভাই অনেক অভাবে আছি , অনেক কষ্টে আছি আমি অনলাইনে আয় করতে চাই , আসলে আমি তাদের ফিলিংস গুলো বুঝতে পারি কিন্তু  আমি তাদেরকে কি বলবো হুঠ করে কিছুই সম্ভব না তাই আপনি কম্পক্ষে ৭-৮ মাস সময় দিয়ে নির্দিষ্ট কোনো কাজ শিখবেন ।

পরিশ্রমঃ

আমি কিছু করতে চাই কোনো পরিশ্রম করতে চাই নাহ ! কিন্তু কোনো পরিশ্রম ছাড়াই আয় করতে চাই   এটা আপনি স্বপ্নেই দেখতে পারেন বাস্তবে নাহ । বাস্তবতাটা অনেক কঠিন হয় আমরা মেনে নিতে পারি অর পারি নাহ । যারা বাস্তবতা মেনে নিতে পারে তারাই কিন্তু সফল । তাই আপনাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে ! যেমনঃ আমার ১ টানা ২১ ঘন্টা কাজ করার রেকর্ড আছে । সফলতা এমনি এমনি আসে না , It has been gained .

সততা

আপনি যেভাবেই আয় করুন না কেনো আপনার মধ্যে সততা থাকতে হবে , যে কাজের মধ্যে সততা নেই সেই কাজে ধংস্তা অনিবার্য সেটা এক্টু আগে আসুক বা পরে আসুক । আপনি ধরে রাখেন আপনার পতনকে । কিছু সিস্টেম যা অনৈতিক ভাবে অনলাইনে আয় করে যেমনঃ Sex video আপলোড করে , ভূয়া খবর প্রকাশ করে যেমন কোনো নিউজে বল্লো যে প্রথম কালিমাটা পড়লে এত নেকি পাওয়া যাবে , দেখবেন সেখানে কয়জনি ঢুকলো কিন্তু যখন বলা হয় সাকিব খান , আরজিত সিং , সাল্মান খান আর নেই , আসলে ঢুকে দেখেন যে তারা অমুক ছবিতে অভিনয় করে মারা গেছে । তারপরে আরো কিছু বলি মানুষকে ধোঁকা দিয়ে টাকা নেওয়া , যেমন আপনি যদি আমাকে ৫ হাজার টাকা দেন তাহলে আমি আপনাকে পেপাল একাউন্ট খুলে দিবো হ্যা সাময়িকভাবে আপনি লাভবান হবেন । এই গুলো কোনো বৈধ পথ নয় , তাই অনলাইনে আয় ( Online Income ) করতে হলে সততার সাথে কাজ করতে হবে এতে আপনি হাজার কেনো এক সময়ে লাখের উপরে আয় করতে পারবেন ।

সবাই পারছে কিন্তু

আপনি পারছেন না তাই তো , আসলে আপনি যাদেরকে দেখছেন মাস শেষে হাগার হাগার ডলার আয় করছে আসলে তার কাহিনি কি আপনি জানেন -
  • তারা সমস্যায় পড়লে কাউকে না বলে নিজে সমাধান করার চেষ্টা করেছে 
  • কাজের জন্য রাতের পর রাত জেগেছে সেটা কেউ দেখেনি 
  • হাজার ভুল করেছে শুধু সফলতা পাবার আশায় 
  • তারা খুবই আত্নবিশ্বাসী যে তারা পারবে ।
  • হাল ছেড়ে দেয় নি ,বার বার ট্রাই করেছে
আপনি কি এই গুলো করেছেন ? আপনি যে বলতেছেন তারা পারছে আমি কেনো পারছি নাহ ।

প্রথমে কি করতে হবে?

প্রথমে আপনি অনলাইনে কাজ গুলোর মধ্যে কোনটি শিখতে চান , সেটা আপনাকে ফিক্স করতে হবে । তারপর সেটা আমার ব্লগ পড়ে হোক , অন্য ব্লগ পড়ে হোক বা ইউটিউবে ভিডি ও দেখে হোক শিখে নিবেন । যেমনঃ আপনি ইউটিউবে এস ই ও র ভিডিও দেখতে চান তাহলে লিখুন এস ই ও ভিডিও টিউটোরিয়াল বা SEO Bangla video tutorial  সার্চ করার পরে filter এ ক্লিক করুন এবং play list এ ক্লিক করুন এখানে সকল ভিডিও দেখতে পাবেন । এদের কেউ কেউ কোচিং সেন্টারে যেতে বললেও কান দিবেন না , ভিডিওর কি ইউটিউবে অভাব আছে অনলাইনে আরটিকেলের কি অভাব আছে । আমি আপনাদেরকে এস ই ও দিয়ে বুঝালাম আপনারা যেটা চান সেটা করে অনলাইনে আয় ( Online Income ) করতে পারবেন । আর গোপন ট্রিক্স জানতে সোজা ফেইসবুক ফেইজে লাইক দিয়ে আমাকে এস এম এস করুন আমি বলে দিবো ।

কিভাবে অনলাইনে আয় ( Online Income ) করা যায়?

মারকেটপ্লেসে কাজ করেঃ

হ্যা অনেক মার্কেট প্লেস আছে যেখানে আপনি ক্লায়েন্টের কাজ করে দিয়ে আয় করতে পারেন অথবা আপনি যে কাজ পারেন সে কাজের অফার ক্লায়েন্টদেরকে করতে পারেন এতে তাদের কাজ করে দিয়ে আপনি আয় করতে পারেন এই পধ্যতিতে ১০ হাজার থেকে কেউ কেউ লাখের উপরে আয় করছেন । কয়েকটা মার্কেট প্লেস ঃ Upwork , Peopleperhour , fiverr  ইত্যাদি

এফিলিয়েট মার্কেটিং ঃ

এফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে এমন এক পধ্যতি যেখানে আপনি কোনো ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানের পণ্য বিক্রি করে দিয়ে কিছু  অংশ কমিশন হিসেবে পাওয়ার প্রক্রিয়া । এই পধ্যতিতে আপনি সব চেয়ে বেশি আয় করতে পারবেন , ধরেন আপনি কোনো কম্পানির ১ লক্ষ্য টাকা দামের মোবাইল অনলাইনে বিক্রি করে দিলেন তাহলে অই কম্পানি আপনাকে একটি সেলের জন্য ১০ - ১৫ হাজার টাকা দিবে আর যদি আপনি ১০০ টা সেল করতেন , হা হা  হা 😂 এই জন্যই আমি বলছি এই প্রক্রিয়ায় সবচেয়ে বেশি আয় করতে পারবেন । কয়েক্টি এফিলিয়েট সাইট যেমনঃ  Clickbank , ebay , amazon , Hostgator ( Hosting affiliation) 

গ্রাফিক্স ডিজাইনের মাধ্যমেঃ

আপনি কি গ্রাফিক্স ডিজাইন ভালো পারেন? তাহলে গ্রাফিক্স ডিজাইন ( Graphics Design ) থেকে আয় করুন ।  ক্যারিয়ার গড়ুন অনলাইনে graphics design এর মাধ্যমে । গ্রাফিক্স ডিজাইনের মাধ্যমে আয়  করার অনেকগুলি ওয়েব সাইট আছে কিন্তু সবচেয়ে ভালো হবে ৯৯ডিজাইন । আপনি আপওয়ার্কে  ও গ্রাফিক্স ডিজাইনের মাধ্যমে আয় করতে পারবেন । কিন্তু পারথক্য আছে সেটা হচ্ছে ৯৯ ডিজাইনে আপনি যেটাকা পাবেন আপ ওয়ার্কে কখনো এত টাকা পাবেন না , বড় বড় কন্টেস্টে জিততে পারলে তো একটা ডিজাইনের জন্যই ২-৩ লক্ষ্য টাকা , জি হ্যা সঠিক বলছি ট্রাস্ট মি ।

ইউটিউবের মাধ্যমে আয়ঃ

আপনি ইউটিউব থেকে ২ ভাবে আয় করতে পারেন ১ হচ্ছে চ্যানেল মনিটাইজ করে আরেক হচ্ছে  আপনার ব্লগ বা এফিলিয়েট প্রোডাক্টের উপর রিভিউ ভিডিও তৈরি করে । মনিটাইজেশন প্রক্রিয়ায় আপনি গুগল এডসেন্সের এড বসালে আপনার ভিডিওতে কেউ ভিউ করলে বা ক্লিক করলে আপনার আয় হবে । তবে usa এর ভিজিটর আনতে  পারলে বেশি লাভ কারণ আপনার আয় তখন ৪ গুণ থেকে ৫০  গুণ ও হতে পারে  । আর আমাজন বা ক্লিক ব্যাংক অথবা হোস্টগেটরের উপরে রিভিঊ ভিডিও তৈরি করে নিচে এফিলিয়েট লিংক দিবেন ঢুকাই  😋 । এই ভাবে আয় করবেন সব কিছু বিস্তারিত লিখবো তাই চোখ রাখুন মুক্ত আইটিতে ।

ইনভেস্ট করে  আয় ঃ

হা অনেকে আছে তেমন পরিশ্রম করেনা কিন্তু আয় করতে চায় । কিন্তু যেখানে সেখানে ইনভেস্ট করে সর্বহারা হবেন না , আমি একটা ট্রাস্টেড সাইট পাইছি এবং সেটি থেকে খুব ভালো আয় ও করছি বলা যায় আপনি ১ হাজার + ডলার আয় করতে পারেন জাস্ট মাথা খাটিয়ে ।

ব্লগিং করে আয়ঃ

ব্লগিং করে আয়টা হচ্ছে অনলাইনে আয় করার সর্বশ্রেষ্ঠ উপায় । আপনি যদি লাইফটাইম আয় করতে চান এবং অনেক বেশি আয় করতে চান তাহলে বলবো ব্লগিং এর বিকল্প নেই , তাই ব্লগ তৈরি করে আজই কাজে নেমে পড়ুন তবে নিজে লিখুন অন্যের লেখা কপি করে সফল কখনই হবেন না । প্রথমে ব্লগ তৈরি করুন তারপর এস ই ও করুন এবং প্রতিদিন পোস্ট করে যান ভিজিটর না আসুক মাস ৬ বা ১ বছর কষ্ট করে প্রত্যেকদিন পোস্ট করুন । দেখবেন ব্লগ দাড়িয়ে গেলে আপনাকে আর কষ্ট করতে হবে নাহ , তবে হা পোস্ট টা করতে হবে না হয় ভিজিটর ড্রপ দেওয়া শুরু করবে । ব্লগে বিজ্ঞাপন বসিয়ে , এফিলিয়েট প্রোডাক্ট বসিয়ে অনেকভাবে ব্লগ থেকে আয় করা যায় । জাস্ট মাথাটাকে কাজে লাগালে হয় ।

সমস্যায় পড়লে কি করবেন?

আপনাদের অনেকেরই অভ্যাস মানুষকে হুদাই বিরক্ত করা ব্লগারদের এত বিরক্ত করা ঠিক না , তাদের ও কিন্তু একটা পারসোনাল লাইফ আছে । আপনাদের সেটা বোঝা উছিত আপনি ব্যাথ না হলে সফল হতে পারবেন না , তাই আপনাকে ব্যর্থ হইতে হবে তারপরে সফলতা পাবেন । কোনো বিষয় না বুঝলে গুগল সার্চ করুন বাংলা ও ইংরেজিতে । সমাধান না হলে ইউটিউবে অই টপিকের ভিডিও দেখেন । এর পর ও যদি সমাধান না হয় আমাকে বলতে পারেন ।

ইংরেজি এর প্রতিবন্ধকতা দূরিকরণঃ

জি হ্যা আপনাদেরকে উপরে অনেক গুলো রাস্তা দেখিয়েছি কিন্তু এখানে একটা বাধা আছে অবস্টেকল আছে সেটা হচ্ছে ইংরেজি অনেকে ইংরেজিতে বলতে পারেন বা কমুনিকেট করতে পারেনা , তাদের ক্ষেত্রে আমার সাজেশন হচ্ছে আপনারা এই ওয়েব সাইটটি প্রত্যেকদিন ১ ঘন্টা করে পড়ুন , ভিবিন্ন ইংলিশ মুভি বা নিউজ দেখুন , নিউজপেপার পড়ুন , বাই -ব্রাদারের সাথে ও ফেমিলির সাথে ইংরেজি বলার চেষ্টা করুন । "Practice makes a man perfect"

*** টিউনটি পড়ে যদি মনে হয় আপনি উপকৃত হয়েছেন তাহলে আপনি এটি  ফেসবুক, গুগল প্লাস, টুইটারে   শেয়ার করতে ভুলবেন না  ***


খুবই কষ্ট লাগে তখনই যখন দেখি কিছু আবালরা ( চোর ) আমার অনুমতি না নিয়ে অথবা মুক্ত আইটিকে ক্রেডিট না দিয়ে তাদের ব্লগে বা অন্যান্য ব্লগে পোস্ট করে দেয় , মুক্ত আইটি এর কপিরাইট সংরক্ষিত তাই কপি করলে তা কপিরাইট আইনের আওতায় পড়ে । ধারা ৮২/৮৩ অনুযায়ী চার বছর কারাদন্ড ও ৩ লক্ষ্য টাকা জরিমানা

নিচের টিউটোরিয়াল গুলো লক্ষ্য করুন কাজে লাগতে পারেঃ
      আজ এই পর্যন্তই সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন । সবার জন্য শুভ কামনা রইলো । আমাদের পোস্ট গুলো দ্বারা যদি নূন্যতম ও উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে ফেসবুক,টুইটার,গুগল প্লাস এ আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না । কারো কোনো সমস্যা হলে কমেন্ট এ জানান। আমি সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো । আমাদের ব্লগের সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের পেজে লাইকদিন। অথবা ফেসবুকে আমাকে জানাতে পারেন

      আমাদের ব্লগে নতুন কোনো পোস্ট আপডেট হলে সেটি আপনার ইমেইলের মাধ্যমে পেতে এখুনি সাবস্ক্রাইব করুন ।


      Mypayingads Bangla Tutorial । যারা ইনভেস্ট করে আয় করতে চান , তারা এই দিকে আসুন ।

      Mypayingads Bangla Tutorial । যারা ইনভেস্ট করে আয় করতে চান , তারা এই দিকে আসুন ।

      MYpayingads bangla Tutorial

      Hello ,সবাই কেমন আছেন? আমি ভালো আছি । আশা করি আপনারা ও ভালো আছেন । আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো কিভাবে আপনি অনলাইনে টাকা ইনভেস্ট করে Mypayingads এর মাধ্যমে টাকা আয় করবেন ।   অনলাইনের মাধ্যমে আয়ের অনেক উপায় আছে যেমনঃ ফাইল আপলোড করে আয়  ,  এন্ড্রয়েড মোবাইলের মাধ্যমে এপ্স ইন্সটল করে আয় , PTC সাইটের মাধ্যমে আয় , লিংক শেয়ার করে আয়  ,  ব্লগে আরটিকেল লিখে আয়  ইত্যাদি উপায় রয়েছে সে যাই হোক ফ্রি মেথড গুলোতে বলা যায় সফলতার সম্ভাবনা ৫ % কিন্ত পেইড মেথডে সফলতার পরিমান ৮০-৯০% । বিশ্বাস করুন আমাকে মিথ্যা বলছিনা । আপনি দেখেন যারা অনলাইনে বলা চলে সফল তাদের ব্যাকগ্রাউন্ড কি ? তারা দিন-রাত এক করে পরিশ্রম করেছে , টাকা ইনভেস্ট করেছে তারপরে তাদের সফলতা এসেছে । তাই যারা বলেন কোনোমতে হাত খরচ যোগাড় করতে পারলেই হবে আমি বলবো অনলাইন থেকে আয় তাদের জন্য না । এখানে আপনি সময় দিতে হবে , তাহলে আপনি লাইফটাইম অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন ।

                         

      How to earn money by investing money Mypayingads bangla tutorial

      Mypayingads bangla tutorial mypayingads থেকে কিভাবে আয় করা যায়

      রেভেনিউ শেয়ারিং কি?

      রেভেনিউ শেয়ারিং সাইট হচ্ছে এমন একটি সাইট যারা কিনা আপনার থেকে টাকা নিয়ে ওইটা দিয়ে ব্যবসা করে আপনাকে ওই টাকা দিবে সাথে কিছু  % আপনাকে বোনাস দিবে ।

      ভুয়া নাকি বৈধঃ

      is it Scam or legit?  আমরা যে রেভেনিউ সাইট সম্পর্কে কথা বলতে যাচ্ছি তাহলো MYPayingAds (MPA ) । রেভেনিউ শেয়ারিং সাইটের মধ্যে এটি ১ নাম্বারে  অবস্থান করছে । যখনি অনলাইনে কোনো সাইটের মাধ্যমে আয়ের কথা আসে তখনি  এর সাথে আরেকটি কথা ও আসে যে এটি ভূয়া নাকি সত্যিকারের সাইট যা দিয়ে সত্যি আয় করা । Mypayingads এই পর্যন্ত ১ জন লোকের সাথে ও পোল্ট্রি বাজি করে নাই । এমনকি এটি যে ভূয়া কেউ এটার প্রমাণ দিতে পারবে না । মাঝখানে পেপালের সাথে MYpayingads  এর একটি ঝামেলা হইছিল যার কারণের ইউজারের ব্যালেন্স নিয়ে প্রব্লেম হইছিলো কিন্তু সমস্যা মিটে যাওয়ার পর তারা আবার ইউজারদের একাউন্টে ব্যালেন্স আগের মত করে দিয়েছে । এটি যে ট্রাস্টেড সাইট এটিও এর বড় প্রমাণ যদি ভূয়া হত তাহলে ওই ঝামেলার পর কম্পানি পালাতো আবার ইউজারদের ব্যালেন্স দিয়ে দিতনা ।

      পেমেন্ট প্রুফঃ

      mypayingads bangla tutorial payment proof

       Youtube Live hangouts  with Uday Nara (Founder)


      Mypayingads bangla tutorial 

      Mypayingads এর পটভূমিঃ

      Mypayingads এর মালিক Singapur প্রবাসী ভারতের তামিলনারুর অধিবাসী উদয় নারা একজন সৎ লোক তিনি। অত্যন্ত জ্ঞানী। ইন্টারনেট মার্কেটিংয়ে বিশাল দক্ষতা রয়েছে উনার। উনার সততার কারনে এই সাইট খুব দ্রুত সারা বিশ্বে সুনামের সাথে ছড়িয়ে পড়ছে। কিভাবে কাজ করবো? কত লাভ হবে? কয় দিন পর টাকা ফেরত পাবো? এটা কি বিশ্বাস্থ সাইট? কয় দিন থাকবে? কয়দিন পর স্ক্যাম করলে আমার ক্ষতি হবে করবো ইত্যাদি ইত্যাদি আমাদের মনে নানান প্রশ্ন জাগতেই পারে কিন্তু আমি এত কিছু ভাবি নাই। কাজ শুরু করে দিছি দেখি না কি হয়? আর সেটা থেকেই আজ এই অবস্থা আমার বুঝলেন। কাজ শুরু করেন বেশি ইনভেস্ট করার দরকার নেই অল্প অল্প করে করবেন। আবার ক্যাশ দেওয়ার মত টাকা হলেই ক্যাশ আউট দিয়ে দিবেন ব্যস। তবে আগে রেজিস্টার করতে হবে রেজিস্টার করতে কোন টাকা খরচ হয়না। তারপর আমি Step by Step সব কিছু দেখাবো। আমার রেফারে রেজিষ্টার করলে হেল্পটা অনেক বেশি পাবেন স্বাভাবিক ভাবে। আমি যথেষ্ট হেল্প করবো। সব ব্যাপারে।


      Mypayingads এ কিভাবে রেজিস্টার করবেন?

      এটি অনেক সহজ তেমন জঠিল কোনো কিছুই নেই । প্রথমে আমার দেওয়া লিংক এ ক্লিক করুন
      তারপরে নিচের মত একটি সাইন আপ ফরম আসবে । (আর অবশ্যই আপনারা আমার রেফার লিংকে ক্লিক করে সাইন আপ করবেন আমকে স্পন্সর করলে সুবিধা হবে কি আপনি আমার কাছে সব সময় সাপোর্ট পাবেন । তাই আমার রেফার লিংকের মাধ্যমে সাইন আপ করতে ভুলবেন না ।)

      Mypayingads bangla tutorial mypayingads থেকে কিভাবে আয় করা যায়


      উপরে sponsor:  Muktoit আছে কিনা দেখে নিন যদি না থাকে এই লিংকে যান  তারপরে আপনার নামের প্রথম অংশ , দ্বিতীয় অংশ , ইউজার নেম দিন , ইমেই ঠিকানা দিন ।
      পাসওয়ার্ড এক্টু কঠিন দিবেন যাতে কোনো হ্যাকার আপনার একাউন্ট হ্যাক করতে না পারে । তারপরে term Condition এর বক্সে টিক চিহ্ন দিন । তারপরে ক্যাপচা বসান ( ছবির লেখাটা বক্সে বসান ) । তারপরে আপনার ইনবক্স চেক করুন , আপনার ইনবক্সে একটি কনফারমেশান ইমেইল যাবে , এটি কনফার্ম করলেই আপনার আইদি এক্টিভ হয়ে যাবে ।


      Mypayingads এ আয় করার সিস্টেম কি?

      আপনি এই সাইটের মাধ্যমে ৩ ভাবে আয় করতে পারবেন

      1. Cash Link এর মাধ্যমে এড দেখে
      2. এড প্যাক কিনে ( ইনভেস্ট করে )
      3. রেফার লিংকে মাধ্যমে

      Mypayingads এ এড দেখে আয়ঃ

      আপনার একাউন্টে লগিন করার পরে বাম পাশে ২ নাম্বার লিংক্টাতে ক্লিক করুন অর্থাৎ Cash Links এ ক্লিক করুন ।তারপরে অনেক গুলো এড দেখতে পাবেন এই এড গুলো ঘন্টা পর পরি আসে । যাইহোক ওইখানে যাওয়ার পরে Click here to earn এ ক্লিক করুন । আপনি এই ট্যাব ছেড়ে কথাও যেতে পারবেন না , যদি যান এটি থেমে যাবে তাই আপনাকে ধৈর্য ধরে এই ট্যাবেই থাকতে হবে । তারপরে এড দেখা হয়ে গেলে GO Back Cash Link এ ক্লিক করুন ।


      Mypayingads এ এড প্যাক কিনেঃ

      আপনাকে এই পধ্যতিতে তেমন কিছুই করতে হবে নাহ । প্রথমে আপনি আপনার ড্যাশবোর্ড থেকে purchase এড এ ক্লিক করুন । তারপরে একটি ব্যানার সেট আপ করুন । ব্যানার সেট আপ করার পরে Buy Ad pack এ ক্লিক করুন । তারপরে দেখতে পাবেন Ad pack plan 1, 2, 3,4 এই ভাবে দেওয়া আছে আপনি ১ সিলেক্ট করুন কারণ আপনি যদি পরের গুলো ট্রাই করতে যান তাহলে আপনার মেম্বারশিপ আপগ্রেড করতে হবে । আপগ্রেড করলে আপনি অই অপশন গুলো ব্যবহার করতে পারবেন । তারপরে আপনি পেমেন্ট প্রসেসর সিলেক্ট করে Payza  সিলেক্ট করুন অথবা আপনার যেটা ভালো হয় সেটা ব্যবহার করুন । তারপরে আপনি কতটি এড কিনতে চান সেটি উল্লেখ করুন ।


      এখানে আরেকটি কথা হলো আপনি ফ্রি মেম্বারশিপে ১০০ টির বেশি এড প্যাক কিনতে পারবেন না । এবং প্রতিটি এড প্যাক  এর মেয়াদ কাল ২ মাস । এবং প্রতিটি এড প্যাক থেকে আপনি ০.১ ডলার পাবেন প্রতিদিন । চলুন অংক্টি দেখে নি ।

      ধরুন আপনি ১০০ টি এড কিনেছেন তাহলে মাসে আপনার আয় হবে

      0.1*100=10 Dollar
      10*30=300 Dollar
      300*78= 23400 Taka

      তাহলে দেখতে পাচ্ছেন আপনার আয় কত হচ্ছে ১০০ টি এড প্যাক কিনে ।যদি আপনার ৪০০ টি এড প্যাক থাকে তাহলে আপনার আয় ৯০ হাজার টাকার মত হবে ।


      Mypayingads এর রেফার লিংকঃ

      আপনার আয় এইখানেই থেমে থাকছে না , আপনি যদি কাউকে রেফার করতে পারেন তাহলে তার এড প্যাক কিনার অর্থের ১০ % আপনাকে দেওয়া হবে । তাই এইখানে প্রচুর আয়ের সুযোগ  রয়েছে ।
      যা আপনার কোনোভাবেই মিস করা উচিত নয় ।


      Website ক্রেডিটঃ

      আপনাকে ১ টি এড প্যাকের জন্য ১০০ ভিজিটর তাও আপনি যে দেশ চান সে দেশের ভিজিটর দেওয়া হবে তাহলে আপনি আয় করার পাশাপাশি আপনার ব্লগের ভিজিটর ও পেলেন । যদি আপনার ১০০ এড থাকে তাহলে আপনি প্রতি মাসে  ১০ হাজার কান্ট্রি টার্গেট ভিজিটর পাবেন । অন্য জায়গায় এত ভিজিটর পেতে আপনাকে অনেক টাকা খরচ করতে হত কিন্তু Mypayingsads থেকে আপনি তা ফ্রি পাচ্ছেন সাথে টাকা ও আয় করতে পারছেন , ধন্যবাদ 

      আপনাদের যাদের Mypayingads  এর টিউনটি বুঝতে সমস্যা হয়েছে অথবা আরো বিস্তারিত জানতে চান তারা দয়া করে ফেইসবুকে অথবা স্কাইপিতে ( Abdullah49704 ) যোগাযোগ করেন ।  আমি স্ক্রিন শেয়ার করে সব দেখিয়ে দিব ।

      Mypayingads bangla tutorial
      Mypayingads bangla tutorial
      Mypayingads bangla tutorial
      Mypayingads bangla tutorial 


      *** টিউনটি পড়ে যদি মনে হয় আপনি উপকৃত হয়েছেন তাহলে আপনি এটি  ফেসবুক, গুগল প্লাস, টুইটারে   শেয়ার করতে ভুলবেন না  ***

      নিচের টিউটোরিয়াল গুলো লক্ষ্য করুন কাজে লাগতে পারেঃ
          আজ এই পর্যন্তই সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন । সবার জন্য শুভ কামনা রইলো । আমাদের পোস্ট গুলো দ্বারা যদি নূন্যতম ও উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে ফেসবুক,টুইটার,গুগল প্লাস এ আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না । কারো কোনো সমস্যা হলে কমেন্ট এ জানান। আমি সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো । অনলাইনে আয় বিষয়ক সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের পেজে লাইকদিন। অথবা ফেসবুকে আমাকে জানাতে পারেন

          আমাদের ব্লগে নতুন কোনো পোস্ট আপডেট হলে সেটি আপনার ইমেইলের মাধ্যমে পেতে এখুনি সাবস্ক্রাইব করুন ।






          Bangladesh থেকে Payza Account খোলার উপায় ও ভেরিফিকেশন করার নিয়ম ।

          Bangladesh থেকে Payza Account খোলার উপায় ও ভেরিফিকেশন করার নিয়ম ।
          payza account Tutorial । আমরা সবাই জানি যে অনলাইনে আয়কৃত টাকা উঠানোর ক্ষেত্রে পেপাল একটি শ্রেষ্ট কম্পানি কিন্তু দুঃখের বিষয় এই যে বাংলাদেশে পেপাল নেই কিন্তু বাংলার দামাল ছেলেরা কারো উপর বরশা করে বসে থাকেনা । তারা পেপালকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়েছে  । বর্তমানে  পেপালের অনেকগুলো বিকল্প রয়েছে কিন্তু আমার মতে পেজা একটি সেরা বিকল্প কারণ পেইজা আপনাকে যে সুবিধা দিচ্ছে অন্য কোনো কম্পানি আপনাকে এত সুবিধা দিবে না । তাছাড়া অন্যান্য কম্পানির তুলনায় পেজাতে সাশ্রয় রয়েছে ।  payza তে খরছ অনেক কম ।

          Payza account থাকার সুবিধাঃ 

          • payza account থাকলে অনলাইনে আয়কৃত টাকা ব্যাংকের মাধ্যমে তুলতে পারবেন ।
          • অনালাইনে আয়কৃত টাকা ATM  বুথের মাধ্যমে তুলতে পারবেন । ( মাস্টার কার্ড দিয়ে )
          • একটি ইন্টারন্যাশনাল মাস্টার  কার্ড পাচ্ছেন ।
          • payza account থেকে  payza account  তে টাকা পাঠাতে পারবেন ।
          • Bkash দিয়ে টাকা  যোগ করতে পারবেন ।
          • Bangladesh Comercial Bank  দিয়ে টাকা  যোগ করতে পারবেন ।
          • ডলারকে টাকা হিসেবে তুলতে পারবেন ব্যাংকের মাধ্যমে ।
          • payza account এর ডলারকে টাকা হিসেবে ATM  বুথের মাধ্যমে তুলতে পারবেন ।
          • মাস্টার কার্ডের মাসিক ও বার্ষিক কোনো চার্জ নেই ।
          • মাস্টার কার্ড দিয়ে ফেসবুকে ও গুগলে বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন ।
          • অনালাইনে শপিং করতে পারবেন ।
          • আপনার ব্লগ বা ওয়েব সাইটের জন্য Godaddy,namecheap etc থেকে ডোমাইন নিতে পারবেন ।
          • এডনেট ওয়ার্ক থেকে আয়কৃত টাকা সহজে তুলতে পারবেন
          payza account সাপোর্ট করে এমন কিছু এড নেটওয়ার্কঃ
            payza account খোলার নিয়মঃ


            ধাপ ১ ।  প্রথমে এই লিঙ্কে যান । তারপরে Sign Up অথবা Get your Personal Account Now তে ক্লিক                  করুন একদম নিচের ছবির মত Mouse ফলো করেন ।
             



            ধাপ ২ । তারপরে Country বাংলাদেশ দিয়ে  personal এ ক্লিক করুন





            ধাপ ৩ । তারপরে নিচের মত একটা ইন্টারফেস আসবে   । salutation মানে উপাধি ,আপনার                             salutation যেটা সেটা দিবেন । First Name এ আপনার নামের প্রথম অংশ । Last Name এ                    আপনার নামের  দ্বিতীয় অংশ । তারপরে আপনার ইমেল ও পাসওয়ার্ড দিন ।  

            Note : আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ড অনুযাই সবটা দিতে হবে ,না হয় আপনার payza Verification                 হবে না 



            ধাপ ৪ ।  তারপরে আপনার ইমেইলে একটা লিঙ্ক পাঠাবে ,লিঙ্কে ক্লিক করে ইমেইলটা ভেরিফাই করে নিবেন

            ধাপ ৫ । ইমেইল Verify হলে নিচের মত একটা ইন্টারফেস আসবে  , তারপর বাম পাশ থেকে Complete Profile এ ক্লিক করে  আপনার আইডি কার্ড অনুযায়ী সকল তথ্য দিবেন  ,আমি জানি             আপনারা   পারবেন তাই আর বিস্তারিত বললাম না ।




            পেইজা একাউন্ট ভেরিফাই করার নিয়ম ( How To verify Payza Account )

            আপনার নামের পাশে একটা এরো চিহ্ন দেখতে পাবেন ওটাতে ক্লিক করলে একটা ফ্লাট মেনু দেখতে পাবেন তারপরে Verification এ ক্লিক করুন  >Document Validation  এ ক্লিক করুন ।
            National Id Card বা passport যেটা আপনার জন্য সুবিধা সেটা সিলেক্ট করুন । ওইটার নাম্বার দিন ।
            তারপরে NID এর পেছনের অংশ আপ্লোড করতে হবে । ফটোশপ দিয়ে ইডিট করতে পারেন ।
            তারপরে আপনার ছবি আপ্লোড করতে হবে ,তবে সাবধান যার আইডি তার ছবি হতে হবে । সাবমিট করলে  payza account ২-৩ দিনের মধ্যে ভেরিফাই হয়ে যাবে ।

            ভেরিফাই না হওয়ার কিছু কারণঃ
            • অস্পষ্ট ডকুমেন্ট বা ছবি আপ্লোড করলে
            • একাউন্টের নামের সাথে ডকুমেন্টের নাম মিল না থাকলে
            • ভুল তথ্য বা ইনফরমেশান  দিলে  
            সাধারণত উপরে উল্লেখিত কারণে payza account ভেরিফাই হয় না । আর যদি payza account ভেরিফাই না হয় আপনি লাইভ সাপোর্টে কথা বলেন ।

            পেইজা প্রিপেইড কার্ড ( Payza prepaid card )

            পেইজা আপনাকে অসাধারণ একটা সুবিধা দিচ্ছে । এই প্রিপেড কার্ডের মাধ্যমে অনলাইন উদ্যোক্তাদের ঝামেলার অবসান ঘটলো । মাত্র ১৬০০ টাকা খরছ করে আপনি payza account  থেকে একটি কার্ড পেতে পারেন । তাছাড়া মাসিক ও বাৎসরিক কোনো ফী নেই । কার্ডটি পেতে Wallet এ ক্লিক করুন , prepaid card এ ক্লিক করুন তবে তার আগে একাউন্টে $19.95 বা ১৬০০ টাকা এড করুন তারপরে পরবর্তী নির্দেশনা অনুসরণ করুন । আপনার বাসার ঠিকানায় কার্ডটি পেয়ে যাবেন ইনশাআল্লাহ ।

            mypayingads bangla tutorial

            *** টিউনটি পড়ে যদি মনে হয় আপনি উপকৃত হয়েছেন তাহলে আপনি এটি  ফেসবুক, গুগল প্লাস, টুইটারে   শেয়ার করতে ভুলবেন না  ***



            নিচের টিউটোরিয়াল গুলো দেখেন কাজে লাগতে পারে ঃ
            আজ এই পর্যন্তই সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন । সবার জন্য শুভ কামনা রইলো । আমাদের পোস্ট গুলো দ্বারা যদি নূন্যতম ও উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে ফেসবুক,টুইটার,গুগল প্লাস এ আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না । কারো কোনো সমস্যা হলে কমেন্ট এ জানান।আমি সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো ।অনলাইনে আয় বিষয়ক সর্বশেষ আপডেট পেতে আমাদের পেজে লাইকদিন। অথবা ফেসবুকে আমাকে জানাতে পারেন